একাকী নির্জনে

মাহমুদা মৌ
সোনাডাঙ্গা, খুলনা।

কবিতাঃ একাকী নির্জনে

আমি নিঃসঙ্গ নই
তবু, নির্জনতায় আমার বসবাস
একাকী বিকেলে পায়চারি কিম্বা
নিভৃত নিলয়ে কাটাই।

একটা সময় কতো হেসেছি
গভীর রাত অবধি কাব্য রচেছি
সুরে সুর মিলিয়ে গান ধরেছি
পূর্ণিমার রাতে বারান্দা কিম্বা ছাদ
থেকে পুরো সৌন্দর্য উপভোগ করেছি!

লোকালয়ের ভীড় আমাকে স্পর্শ করে না
ছুঁয়ে যায় নদী, সমুদ্র, পাহাড়, নীল আকাশ।
কোলাহল পেরিয়ে আমি নির্জনতা খুঁজি
নির্জনতাই আমায় শোনায় সুমধুর সুর।

একাকী সবুজ গালিচায় পা রাখি
পাখিদের উড়ে চলা আর
বুনো হাঁসদের প্যাক প্যাক শব্দ
আমাকে মোহিত করে ছেঁয়ে
যায় সমস্ত কায়া।

স্বর্গের সমুদ্র সৈকতে কতো যুগল
হেঁটে চলে পাশাপাশি।
গাঁথে মুক্তোর মালা ঝিনুক কুড়িয়ে
অস্ফূট স্বরে কথা বলে।
হাসির রিনিঝিনি শব্দে চারপাশ মুখরিত
আমিই কেবল একাকী নিঃস্তব্ধতা খুঁজি
বীণার তারে সুর তুলি
কাব্য রচনা করি —
হে ছায়া মানব
তুমি জানো কি না জানো-
জানে আমার অন্তর্যামী
তোমাকেই খুঁজি আমি
সত্যি বলছি তোমাকে খুঁজতেই
আমি একাকী নিঃস্তব্ধতা বেছে নিয়েছি।

অচিনপুর ডেস্ক/ জেড. কে. নিপা

Post navigation